রবিবার, ২৩ জানুয়ারী ২০২২, ১১:২৩ পূর্বাহ্ন

পাঁচ পরাশক্তি স্বীকার করল পরমাণু যুদ্ধে কেউই জয়ী হবে না

বাংলাদেশ বার্তা ৭১ ডেস্ক / ১৯ বার পঠিত
আপডেট : মঙ্গলবার, ৪ জানুয়ারি, ২০২২, ৬:৫৬ অপরাহ্ণ

অবশেষে পারমাণবিক অস্ত্রের বিস্তার ও পারমাণবিক যুদ্ধ থেকে বিরত থাকতে একমত হয়েছে যুক্তরাষ্ট্র, ব্রিটেন, ফ্রান্স, রাশিয়া ও চীন। রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সরকারি বাসভবন ক্রেমলিন থেকে সোমবার (৩ জানুয়ারি) দেওয়া এক যৌথ বিবৃতিতে এই পাঁচ পরাশক্তি দেশ একথা জানায়। খবর রয়টার্স।

জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য পাঁচটি দেশ নিরাপত্তার পরিবেশ তৈরি করতে সমস্ত দেশের সাথে কাজ করার লক্ষ্যে পারমাণবিক শক্তির রাষ্ট্রগুলির মধ্যে যুদ্ধ এড়ানো এবং কৌশলগত ঝুঁকি হ্রাস করাকে তাদের প্রাথমিক দায়িত্ব বলে মনে করে।

এতে বলা হয়েছে, আমরা নিশ্চিত করছি যে একটি পারমাণবিক যুদ্ধে জয়ী হওয়া যাবে না এবং কখনোই যুদ্ধ করা উচিত নয়। যেহেতু পারমাণবিক অস্ত্র ব্যবহারের সুদূরপ্রসারী ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। পারমাণবিক অস্ত্রগুলি কেবল প্রতিরক্ষামূলক উদ্দেশ্যে পরিবেশন করা উচিত। কোনো দেশ যাতে পরমাণু অস্ত্র ব্যবহার না করে, তা নিশ্চিত করতে হবে। যাদের হাতে এই অস্ত্র আছে, তারা কখনও এই অস্ত্র ব্যবহার করবে না। পরমাণু শক্তির প্রদর্শন সম্পূর্ণ বন্ধ করতে হবে।

বিবৃতি প্রকাশের পর চীনের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সিনহুয়াতে চীনা পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেছেন, পরমাণু অস্ত্র ও যুদ্ধের বিষয়ে পরাশক্তি দেশগুলো একমত হওয়ার ফলে বিভিন্ন দেশের মধ্যে যে উত্তেজনার পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে, তা কিছুটা হলেও কমবে। ফ্রান্সের দেওয়া বিবৃতিতে বলা হয়েছে, পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ন্ত্রণ এবং নিরস্ত্রীকরণের জন্য পরা শক্তি এক জোট হয়েছে। পারমাণবিক অস্ত্র নিয়ন্ত্রণে দ্বিপাক্ষিক এবং বহুপাক্ষিক পন্থা অব্যাহত রাখবে।

চলতি মাসেই পরমাণু অস্ত্র সম্পর্কিত একটি বৈঠকে যোগ দেওয়ার কথা ছিল জাতিসংঘের নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী পাঁচ দেশের। নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু বিভিন্ন কারণে বৈঠক পিছিয়ে দেওয়া হয়েছে। সে কথা মাথায় রেখেই নিরাপত্তা পরিষদের পাঁচ স্থায়ী দেশ সোমবার এই বিবৃতি প্রকাশ করেছে বলে ধারনা করা হচ্ছে।

উল্লেখ্য, ১৯৭০ সালে পরমাণু সংক্রান্ত একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছিল। ১৯৬৮ সালে সেই চুক্তির খসড়া তৈরি হয়েছিল। সেই চুক্তিতে বিশ্বের ১৯১টি দেশ স্বক্ষর করে। উত্তর কোরিয়া অবশ্য পরে সেই চুক্তি থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়। দক্ষিণ আফ্রিকা পরমাণু অস্ত্র তৈরি করে ওই চুক্তির মধ্যে প্রবেশ করে এবং নিজেদের পরমাণু অস্ত্র ধ্বংস করে।


আপনার মতামত লিখুন :

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

এ জাতীয় আরও খবর
Theme Customized By Theme Park BD